• রবিবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২১, ০৩:১৯ অপরাহ্ন
  • Bengali Bengali English English

রামগতিতে করোনা জনসমাগমের প্রতিবাদ করায় ইউপি মেম্বারের হামলায় ৪জন জখম

sodeshbarta24 / ৪৬৪ বার পঠিত
আপডেট : শনিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২০

           “আইনের নিয়মনীতি মানবে এমন শপথ নিয়েও আইন অমান্য করে বসেছে ইউপি মেম্বার মুন্না”

স্টাফ রিপোর্টার :

লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ এড়াতে জনসমাগম সৃষ্টির প্রতিবাদ করায় একই পরিবারের ৪জনকে পিটিয়ে জখম করেছে স্থানীয় ইউপি মেম্বার সামছুদ্দোহা মুন্না। এতে আহত হয় প্রতিবাদকারী আরিফ, তার বড় ভাই জমির উদ্দিন, ছোট রাহিম ও আরিফের মা জান্নাত বেগম। আহতদের উদ্ধার করে রামগতি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়।

শুক্রবার (১০ এপ্রিল) রাতে উপজেলার বড়খেরি ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের মেম্বার মুন্না নিজ বাড়ীতে ডেকে নিয়ে এঘটনা ঘটায়। এঘটনায় আরিফের মা জান্নাত বেগম বাদী হয়ে ৭ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাত আরো ১২ জনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে, স্থানীয় মেম্বার সামছুদ্দোহা মুন্নার উদ্যোগে নিজ বাড়ীর সামনের মাঠে  বিবাহিত বনাম অবিবাহিত যুবকদের পৃথক টীম গঠন করে খেলার আয়োজন করে। এসময় ৫০/৬০ জন লোক জড়ো হয়ে খেলা উপভোগ করে। এমতাবস্থায় করোনা পরিস্থিতি মুহুর্তে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত না হওয়ায় উপজেলা প্রশাসনকে অবহিত করে আরিফ। এক পর্যোয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল মোমিন স্থানীয় চেয়ারম্যান হাছান মাকসুদ নিজামকে খেলা বন্ধ করার নির্দেশ দিলে তা বন্ধ করে দেয় চেয়ার‌ম্যান।

এতে ক্ষীপ্ত হয়ে ইউপি মেম্বার মুন্না ওইদিন সন্ধায় আরিফের বড় ভাই জমির উদ্দিন ও মা জান্নাত বেগমকে তার নিজ বাড়িতে ডেকে নিয়ে বেধম মারধর করে। তাদের শোর-চিৎকারে আরিফ ও তার ছোট ভাই রাহিম ঘটনাস্থলে গেলে তাদেরকেও বেধম মারধর করে। আহত অবস্থায় নিজ বাড়িতে ফিরে আসলে দ্বিতীয় দফায় আরিফদের বাড়িতে গিয়ে হামলা চালিয়ে  রক্তাক্ত জখম করে মুন্না মেম্বারের লোকজন। পরে খবর পেয়ে রামগতি থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের উদ্ধার করে ।

মারধরের ঘটনা স্বীকার করে ড়খেরী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাছান মাকসুদ নিজাম জানান, গত শুক্রবার বিকেলে তার পরিষদের মেম্বার মুন্না সরকারী নির্দেশনাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ৈ খেলার আয়োজন করে আইনবহির্ভূত কাজ করছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশে তিনি ওই খেলা বন্ধ করে দেন। এতে ক্ষীপ্ত হয়ে মুন্না আরিফসহ তার পরিবাররে ৪ জনকে মারধর করছে।
রামগতি থানার অফিসার ইনচার্জ মো: সোলেমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সাংবাকিদে জানান এ ঘটনায় আহত জান্নাত বেগম মামলা করেছে। আসামীদের গ্রেপ্তারে পুলিশ বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালাচ্ছে । তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।


এ জাতীয় আরো খবর..

করোনাভাইরাস